হজরত মুহম্মদ (স.) : আবির্ভাব / আবদুল মান্নান সৈয়দ

হাসসান ইবনে সাবিত (রা.) বলেন: ‘আমি তখন সাত-আট বছরের বালক হলেও
বেশ শক্তিশালী ও লম্বা হয়ে উঠেছি। যা শুনতাম তা বুঝতে পারার ক্ষমতা তখন
হয়েছে। হঠাৎ শুনতে পেলাম জনৈক ইহুদি ইয়াসরিবের [মদীনার] একটা
দুর্গের উপর উঠে উচ্চস্বরে ‘ওহে ইহুদি সমাজ!’ বলে চিৎকার করে
উঠল। লোকেরা তার চারপাশে জমায়েত হয়ে বলল,‘তোমার কি হয়েছে?’
সে বলল, ‘আজ রাতে আহমদের জন্মের সেই নক্ষত্র উদিত হয়েছে।’
-সীরাতে ইবনে হিশাম

ইয়াসরিবের দুর্গ থেকে জন্মের তারকা আহমদের
ওই দ্যাখো হতবাক হয়ে দেখছে ইহুদিসমাজ।
পৃথিবীর যুগ-যুগান্তের আশা পূর্ণ হলো আজ।
‘সালাস!সালাম!’ধ্বনি ছেয়ে গেল সমস্ত জগতে।

শতাব্দীর প্রজ্বলিত অগ্নিকুন্ড হলো নির্বাপিত।
আলোকিত হয়ে উঠল সিরিয়ার প্রাসাদমন্ডলী।
জমিন-আসমান সব নত হয়ে লিখল গীতাঞ্জলি।
পারস্যের প্রাসাদের চোদ্দ চূড়া ভূতল-লুন্ঠিত।

দ্বাদশ রজনী – সোমবার – রবিউল আউয়াল
বক্ষে তাঁকে পেয়ে হলো হর্ষে মত্ত, উদ্দাম, উত্তাল।
সোমবার – রবিউল আউয়াল – দ্বাদশ রজনী
ধন্য হলো বক্ষে পেয়ে পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ রত্নমণি।
রবিউল আউয়াল – দ্বাদশ রজনী – সোমবার
সালামে-চুম্বনে তাঁকে রোমাঞ্চিত নিজেই বারবার।।

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

Connecting to %s