দোয়া / সাইফ আলি

হাতের মুঠোয় পাঁচটা আঙুল
চোখের আরাম, আশার আলো;
রক্ত আমার, হৃদয় আমার
আল্লা তোকে রাখুক ভালো।

ভোগের সমাজ তোর দু’চোখে
হয়না যেনো রূপের রাণী,
বুকের মাঝে বাজতে থাকুক
সমর্পণের সত্য বাণী।

অন্য ঠোঁটের হাসির রেখায়
বাড়ুক তোর ঐ চোখের জ্যোতি,
পরের ক্ষতি মানেই বুঝিস
সবচে আগে নিজের ক্ষতি।

ইহকালের ক্ষণস্থায়ী
এক জীবনের মূল্য দিয়ে
নিস কিনে তুই অনন্ত সুখ;
যাস সেখানে আমায় নিয়ে।

১৯.০৮.২১

আমার শহর তোমার কোলে / সাইফ আলি

আমার শহর তোমার কোলে
হাওয়ায় দোলে, গল্পে ভোলে;
আর না হলে তোমার আচল
তোমার চুলের ফিতেই ঝোলে।

আমার শহর তোমার সাথে
আস্তে ধীরে হচ্ছে বড়ো,
তোমার রেখায় আমার যত
বিন্দুরা সব হচ্ছে জড়ো।

তুমি বলতে তোমরা সবাই
যাদের নিয়ে আমার শহর,
যাদের নিয়ে অলিগলি,
অলিগলির প্রতিটা ঘর।

১৭.০৭.২১

অনুকবিতা ৩৫ / সাইফ আলি

ঘরে বসে বসে জিকিরে ফিকিরে যাচ্ছে তো কেটে বেশ
বাইরে এখন তপ্ত হাওয়ার দিন
গরিবের পেটে ক্ষুধা বেশি তাই গরিবের পিঠে ঋণ।।

১৯.০৪.২১

এতো ভালো কেনো বাসো / সাইফ আলি

এতো ভালো কেনো বাসো
মানুষের কাতারে রাখো না?
আদমের ছেলে আমি
তুমি প্রিয়া আদমেরই মেয়ে,
আমাদেরও পাপ হয়
লোভে পড়ে গন্দম খেয়ে।

যে পাপ করেছি আমি
ক্ষমা চেয়ে মুছবো সে পাপ,
আমাতে ভরসা করো
শুরু হোক ফের সংলাপ।

০৪.০৪.২১

চাঁদ / সাইফ আলি

প্রতিদিন আমাদের কোলজুড়ে নামে এক চাঁদ
সে চাঁদের সারা মুখে জ্বলে থাকে ভয়াল বিস্বাদ
জোছনায় হাতড়াই ঘন এক আঁধারের বুক
আর ভাবি এক্ষণই ক্লান্তিরা ঘুমিয়ে পড়ুক!
আমরা হতাশ হই বার বার বহুবার, ফের
রঙিন স্বপ্ন আর সাধ নিয়ে বাঁচা আমাদের।

১০.০৩.২১

মধ্যরাতের হাওয়ায় / সাইফ আলি

‘মধ্যরাতের হাওয়ায় কেমন গন্ধ থাকে’
বললে তুমি অবাক চোখে তাকাও
কারণ তোমার জানলা তখন বন্ধ থাকে
মধ্য রাতের হাওয়ায় কিছু ছন্দ থাকে।

তা না হলে এই যে আমি রাত্রি জেগে
কাব্য লেখার নেশায় এমন বুদ হয়ে যাই,
দিনের বেলা যে রাস্তাটা বন্ধ থাকে
সে রাস্তাতেই জোছনা নামে দারুণ মায়ায়!

মধ্যরাতের হাওয়ায় কিছু দ্বন্দ্ব থাকে
খুঁজলে তাতে ছন্দ থাকে, গন্ধ থাকে।
২৭.০১.২১

প্রয়োজন মিটে গেলে বলে দিও / সাইফ আলি

প্রিয়
প্রয়োজন মিটে গেলে বলে দিও
ঝরা পাতা হবো, বহুকাল পুরোনো এ শখ
আর এই কথা জেনে রাখা তোমাদের হক।

প্রয়োজন মিটে গেলে কানে কানে ফিসফিসে স্বরে
বলে দিও- ‘আসতে পারেন’ ছোটো করে- ‘এসো’।
বহুদিন যাইনি কোথাও,
বেড়ানোর ছলে
কৌশলে সরে যাবো, জানবে না কেউ;
স্বপ্নেও আসবো না কারো
আর যদি পারো
আকারে বা ইশারায়; সবচেয়ে ভালো হয় সেই
এর থেকে সাবলিল আর কোনো বিচ্ছেদ নেই।
প্রিয়
প্রয়োজন মিটে গেলে আত্মাও রাখে না এ দেহ
তাই বলে দিও
আমি জানি, তোমাদের ভালোবাসা, স্নেহ
কোনোদিন ফুরোবে না, কমবে না একচুল মাপে;
কেবল পচন ধরে সময়ের উত্তাপে, ভাপে।
২৭.০১.২১

ছায়া ধরে বেঁচে আছি / সাইফ আলি

ছায়া ধরে বেঁচে আছি
একদিন ছেড়ে যাবে সেও;
ভয় পাবো কিসে বলো
প্রেম যদি থাকে মরণেও?

কেবল দুনিয়া যার
তার শত রোগে শোকে ভয়,
শাহাদাৎ পেয়ালায়
ঠোঁট রেখে খুঁজি পরিচয়।
০৮.১২.২০

পৃথিবীটা নেড়েচেড়ে / সাইফ আলি

পৃথিবীটা নেড়েচেড়ে রেখে দেবো ফের
কিসে এতো ভালোবাসা মায়া আমাদের?
দু’দিনের মুসাফির, ঘর বাঁধি; পাথরের ঘর
হাতে হাতে গড়ে তুলি কি দারুণ পাপের শহর
তারপর একদিন ছেড়ে গেলে ছায়া আমাদের
পৃথিবীটা নেড়েচেড়ে ঠিকঠাক রেখে দেবো ফের।

আমাদের সন্তান, সম্পদ, ভালোবাসা সব
ভাগাভাগি হয়ে যায়; কে চালায় কসায়ের ছুরি?
আমলের খাতা খুঁজি, হায় হায় চুরি গেছে চুরি!
এখন তো খালি হাতে কেউ নেই কিছু নেই, রব…
জানতাম পৃথিবীটা নেড়েচেড়ে রেখে দেবো তবু
কেনো যে মেতেছি ভুলে, ক্ষমা করো ক্ষমা করো প্রভু।
০৩.১২.২০

যদি চাও / সাইফ আলি

পাতাগুলো ঝরে যেতেই বাকলের চিরগুলো স্পষ্ট হয়ে উঠলো,
তুমি বললে শীত আমার ভালো লাগে না
অথচ শীতকে অতিক্রম করেই বসন্তে প্রবেশ করতে হবে।
নতুন সবুজের প্রসববেদনায় জর্জরিত শীত আমাকে ডাকছে-
আমি একটা আগুনের স্তুপ তৈরি করছি
যদি চাও, পাশাপাশি বসে শীতকে উপভোগ করতে পারি।
২৯.১০.২০