আস্সালাতু খয়রুম্ মিনান্ নাউম… / সাইফ আলি

বেলা বাড়ার সাথে সাথেই আমরা কেমন অধৈর্য্য হয়ে যাই,
আমাদের নিঃশ্বাসগুলো দ্রুততর হয়ে ওঠে;
আমরা ভাবি, এই বুঝি সূর্য ডুবে যাবে,
অন্ধকারে নিপতিত হবে আমাদের সমস্ত আশার শিশুরা।
আমরা অস্থির হয়ে দীপ জ্বালি,
অসংখ্য দীপ,
কিন্তু তাতে অন্ধকার কাটে না
বরং শিখা থেকে চোখ তুলে নিতেই নিকষ অন্ধকারে ডুবে যাই মুহুর্তেই!
আমরা কি জানি, আমাদের চোখ কতবার অন্ধকারে নিমজ্জিত হলে
জ্বেলে দেয় নিজস্ব জ্যোতি?
বেলা তো গড়াবেই,
সূর্য তো অস্ত যাবে বলেই উদিত হয়;
যদি রাত্রি না নামতো আমরা কি পেতাম চন্দ্রভ্রমণের অপার মুগ্ধতা,
আমরা কি কোনোদিন অন্ধকার ছাড়া জোনাকির অস্তিত্ব স্বীকার করতে পারি?
না, এ অন্ধকার আমাদের কাম্য ছিলো;
আমরা তো অন্ধকারেই নতুন ভোরের স্বপ্ন দেখতে শিখেছিলাম।
সূর্য ডুবে যাবে এটা কোনো বড় বিষয় না;
আসল বিষয় হলো রাত পোহাতেই মুয়াজ্জিনের কণ্ঠ শুনতে পাবো-
আস্সালাতু খয়রুম্ মিনান্ নাউম…