মা / সাইফ আলি

চোখের কারিসমা তোমার
অল্পেই বুঝে ফেলো সব
অনুভুতি প্রখর তোমার
সহজেই করো অনুভব!

যাকিছু মলিন ছিলো
তোমার ছোঁয়ায় ওঠে হেসে
তবু তুমি এভাবে আচলে
কেনো ঢাকো মুখ? অবশেষে
তোমাতেই তৃষ্ণা মিটাই;
তুমিই জলধি মাগো
তোমাতেই প্রান ফিরে পাই।

Advertisements

একান্ত বাক্যেরা-২৪ / সাইফ আলি

ভাবছো তুমি ভাবছে না মন তোমার কথা
কেনো এমন ভাবনা তোমার আমার নিয়ে
আমার যে আর অন্য কাজে বসছেনা মন
তোমার নিয়ে হর-হামেশা ভাবতে গিয়ে।

একান্ত বাক্যেরা-২৩ / সাইফ আলি

হাজার গল্প এক কবিতার উপমায় মেলে যেখানে
সেখানে তোমার চোখ
আমি উপন্যাসের ডায়রিতে লেখি ছড়া
তুমি পড়ো, তুমি কি পড়ো?

কি নাম যে তার / সাইফ আলি

কে ছিলো হাতের মুঠোয়
অন্য হাতে জাদুর কাঠি
চোখে কে কাব্য ছিলো
ঠোঁটের আফিম কার ছিলো তা
কে ছিলো সরল সুখে এবং সরল বিষণ্নতায়।

কে ছিলো হৃদয় গলে হুড়মুড়িয়ে ক্লান্ত সময়
পায়রার ঢং নিয়ে কে ঘাঁড় বাঁকিয়ে, কি নাম যে তার!!?

একান্ত বাক্যেরা-২২ / সাইফ আলি

তোর আওলা চুলের চঞ্চলতায় ঝরুক রোদ
আর বুকের ভিতর বকুল ফুলের ঘ্রাণ জমুক
আমি পাখির মতোন ডানায় লুকোয় দুঃখ সব
আর রাতের গভীর অন্ধসুখে পথ হারাই।।

একান্ত বাক্যেরা-২১ / সাইফ আলি

কালো পাখি জানালায়
কালো পাখি বাসা বাঁধে পরাণের ভাজে
কালো পাখি গান গায়
এবং লুকায় মুখ নিরবে সলাজে…

একটা সকাল অন্যরকম হতেই হবে / সাইফ আলি

একটা সকাল অন্যরকম হতেই হবে
শিউলি ফুলের শফেদ কিছু স্বপ্ন বুকের বা’পাশটাতে
এবং হাতে রোদের তোড়া;

একটা সকাল টং দোকানের বেঞ্চে বসে কাক গণনার
এবং নানান অসঙ্গতির বাইরে এসে হতেই হবে অন্যরকম
যেমন ধরুন রশুন খেতের মধ্য দিয়ে শিশির পায়ে
কিংবা নদীর সঙ্গ নিয়ে হাঁটতে থাকার-

একটা সকাল বেলকনিতে রকিং চেয়ার শূন্য রেখে
পাহাড় ছুঁয়ে উড়তে থাকা মেঘের সাথে
কিংবা পাখির ডানায় ডানায়-