আবেগ / সাইফ আলি

আবেগ তোমার গন্ধ কেমন? ছন্দ কেমন?
বেগের সঙ্গে দন্দ্ব কেমন?

সেদিন কে যে বললো ডেকে
রাতের আবেগ বড্ড খারাপ;
জাগলে তখন খ্যাল থাকে না
পূণ্য কিসে, কোনটা বা পাপ-
তাই বলে কি দিনের বেলা
বন্ধ থাকে তোমার খেলা?
সেটাও তো না।
কিন্তু তুমি কোথায় থাকো
কেমন কোরে কোন বা ভাষায় অমন ডাকো
যায় না ফেরা;
আবেগ তোমার আস্তানাটা কোথায় বলো,
কোথায় ডেরা?

Advertisements

আমি ভালো আছি / সাইফ আলি

‘মামা একটা চা’

চিনির পরিমান কিংবা আদা হবে কিনা কিছুই বলা লাগেনা এখন-
মামা জানে আমার অনুপাত-

‘ভালো আছি’ বলতে এরকম এককাপ চাই বোঝায় এখন
কতটুকু কিংবা কেমন ভালো আছি এটা আর বলতে হয়না।
সবাই বোঝে কিংবা এটাই অভ্যাস-

ভালো থাকা কাকে বলে?
ধরুণ পকেটে পয়সা নেই কিংবা চুলায় আগুন;
ভালো আছি তবু-
বেকার বন্ধুদের মুখে যেনো খই ফোটে, চলছে ভালোই।
অসুস্থ মা? সেও নাকি ভালো আছে!
ভালো থাকে কিংবা থাকতে হয়-
ভালোথাকা এমন এক অভ্যাসের নাম।

হাসপাতালের বেডে যে কিনা মৃত্যুর মুখোমুখি দাঁড়িয়ে
তার কাছে জানতে চান-
একগাল হেসে কি দারুণ বলে দেবে- আগের চে ভালো!

:কেমন আছো ভাই?
:এইতো যাচ্ছে দিন; খারাপ কি, ভালোই… আপনি?
:আমি ভালো আছি।

হলুদ পাখিটা / সাইফ আলি

হলুদ পাখিটাকে দেখলে মায়া হয়
কেনো সে ডালে ডালে ঘুরছে প্রেমহীন,
আমি কি সুবিশাল প্রেমের ভান্ডার
মেলিয়ে রাখলাম তবু সে দেখলো না!

পাখির চোখদুটো কেমন বোকা বোকা
ঠোঁটের পাশ ঘেঁসে লতার রঙঢঙ-
ডানার ভাঁজ খুলে যদি সে উড়ে যায়
পাতায় জাগে তার প্রেমের কম্পন!

হলুদ পাখিটাকে পুষবো অন্দরে;
জানো সে কোন মায়া-মন্ত্রে পোষ মানে?

একান্ত বাক্যেরা-১৯ / সাইফ আলি

আমি ভুলে গেলে তুমি ভুল হয়ে যাবে সত্যি
আমি ভুলে গেলে তুমি নিজেকেই চিনবে না-
তবু মিছে কেনো এই বায়না তোমার, বৃষ্টি
পারো যদি এই মেঘ ছাড়া ভালোবাসো।

একান্ত বাক্যেরা-১৮ / সাইফ আলি

ধরে রেখে তারা আকাশ কি পেলো বোঝো?
তবু কেনো মিছে ভালোবাসা তুমি খোঁজো?
ভালোবেসে শুধু আলোকিত হওয়া যায়
আঁধার সেটাতো হৃদয়ের শূন্যতা-

নিয়ম ভাঙার রাত / সাইফ আলি

বিকেল গড়ায় সন্ধ্যা নামে এটাই নিয়ম
কিন্তু তুমি নিয়ম ভাঙার খেলায় মেতে
আনলে ডেকে কেমন এ রাত-
এই দেখোতো, যাচ্ছে চেনা প্রাচীন এ হাত?

এ হাত যখন ফুল ছুঁয়েছে তখন তুমি সঙ্গে ছিলে
যখন কেবল স্বচ্ছলতায় পূর্ণ ছিলো;
কিন্তু এখন হাত বাড়ালে শূন্যতারা আসর জমায়
এবং কি সব দ্রোহের বায়ু কাব্য পাঠে মত্ত থাকে।

তোমার চোখে রাত দেখেছি তারার সে রাত
জোছনা এসে জাল বুনেছে নিপূণ মায়ায়
কিন্তু এখন নিয়ম ভাঙার শূন্য এ রাত
কেমন যেনো মগ্ন কেবল নিজের ছায়ায়।

তবে চোখ বুজেছি / সাইফ আলি

আমি ঘুমিয়ে গেলেই নাকি
নামাও জোসনা উঠোন জুড়ে,
তবে চোখ বুজেছি প্রিয়
তুমি সাজাও আমার কুড়ে।

আমি বলবো কথা ভেবে
তুমি আড়াল খোঁজো যদি,
জানি আকাশ-বাতাস বোঝো
এবার একটু বোঝো নদী।

আমি খাঁচার পাখি করে
তোমায় রাখবো এমন ভয়?
তবে চোখ বুজেছি নামো
ভোলো মিথ্যে ও সংশয়।

একান্ত বাক্যেরা-১৭ / সাইফ আলি

অনেক আলোর রঙ মেখে আমি আঁধারে ধুয়েছি মুখ;
অনেক দিনের গন্ধে আমার ভিজেছে জোনাক রাত-
তুমি আঁধার হয়ো গো রানী-
আমি রাজ্য বিছাবো পায়।

অনুরোধ / সাইফ আলি

আকাশ পড়বে ঢাকা
দোহায় তোমার চোখের পর্দা টেনোনা
দরিয়া দেখবে ধুলো
দোহায় দোহায় এমন সূর্য এনোনা!

পাগলের এই খা’ব
শুনে যদি ফোটে জোনাকির মুখে হাসি
তবে তাই ভালোবাসি।

আকাশ পড়বে ঢাকা
দোহায় এমন নষ্ট দেয়াল তুলোনা;
বাসি পতাকার মোহে
প্রতিহিংসার জানালা তোমার খুলোনা।

সারামাস আমি জোছনা কুড়োবো
এমন স্বপ্নে ভাসিনি,
তাই বলে তুমি বলতে পারো না
একটুও ভালোবাসিনি।