বলো তারপর কোথায় আমরা যাবো / সায়ীদ আবুবকর

এত মৃত্যু, এত লাশ
এত ধ্বংসযজ্ঞ, এত সর্বনাশ
আর ছোপ ছোপ এত রক্তের উপর দিয়ে হেঁটে
হয়তো বা স্বপ্নের সে গেটে
পৌঁছে যাবো ঠিকঠিকই, যে রহস্যময় গেট খুললেই
সাফল্যের সাজঘর-
তারপর?

বলো তারপর কোথায় আমরা যাবো? ধু-ধু নীল
আকাশে কেবলি ওড়ে আজ বাজপাখি, শকুন ও চিল।
জীবনের রাজপথে ক্ষুধার্ত শেয়াল ডাকে।
সেই ডাক
টেনে আনে ঝাঁকে ঝাঁকে
কি-বীভৎস বন্য সব সাদা কাক!
মানুষের কান
শুনতে পায় না আর কোনো কোকিলের গান।
মানুষের চোখ
দেখতে পায় না আর সবুজা অরণ্য কোনো, শুধু দ্যাখে
বৃক্ষহীন, পুষ্পহীন এক জ্বলন্ত নরক।
এইসব জাহান্নাম পার হয়ে হয়তো সে সফলতা,
যার কথা
বলে চলে আমাদের ওষ্ঠ ও অন্তর-
তারপর?
বলো তারপর কোথায় আমরা যাবো?

যে-অর্জনে মানুষের খুন লেগে থাকে;
যে-অর্জন সভ্যতাকে
করে যায় ছিন্নভিন্ন, বিকলাঙ্গ, হীন;
যে-অর্জনে বাড়ে শুধু মানুষেরই দুর্ভোগ-দুর্দিন;
যে-সাফল্যে পথে পথে পড়ে থাকে অগণন মানুষের লাশ-
তাই নিয়ে হয়তো বা বিজয়উল্লাস
করা যায় পথে পথে, হয়তো বা সেইসব লাশের উপর
সদম্ভে দাঁড়িয়ে গাওয়া যায় বিজয়সঙ্গীতও- কিন্ত তারপর?

তারপরও আমরা কি রয়ে যাবো
মানুষের জাতি? তারপরও আমরা কি বয়ে যাবো
মানুষের মন, সুকঠিন আমাদের বুকের ভিতর,
নাকি আমরাও শেষমেশ হয়ে যাবো
দুই পেয়ে এক নিকৃষ্ট ইতর?

২৫.৭.২০১৪- ২৭.৭.২০১৪ বড় মসজিদ ও মিলন মোড়, সিরাজগঞ্জ