ভোরের পাখির মতো / সাইফ আলি

আমি যদি ঐ ভোরের পাখির মতো
জানালার ফ্রেমে, পুরাতন কার্নিশে
কণ্ঠের সব অবরোধ তুলে নিয়ে
চিৎকার করে বলতাম- ‘ওঠো ওঠো,
চেয়ে দেখো মৃদু বাতাসের ভাঁজে ভাঁজে
আত্মত্যাগের মহিমায় উজ্জ্বল
বুনো ফুলেদের পবিত্র নির্যাস।
চেয়ে দেখো দূরে আকাশ রাঙানো রোদ
তোমার জানালা-দরজায় কড়া নাড়ে
তোমার উঠোনে লুটোপুটি খেলা করে।
কান পেতে শোনো ঢেউয়েদের গর্জন
ভেঙে আর গড়ে নদীটার দুই কূল
মোহনার পানে ছুটেছে ক্লান্তিহীন।
চেয়ে দেখো ঝোপে জোনাকিরা জ্বলছে না
পশ্চিম তীরে ডুবেছে রাতের চাঁদ,
ছায়াপথ জুড়ে তারাদের বৈঠক
শেষ হয়ে গেছে, ঘুচেছে আঁধার রাত।
তোমার দুয়ারে এখন সোনালী ভোর
তোমার উঠোনে রোদ্রের গড়াগড়ি
তোমার বাগানে ফুলেরা উঠেছে জেগে
ভ্রোমরেরা এসে গাইছে মধুর গান
অথচ তোমার দু’চোখে ঘুমের রেশ।
একবার দেখো ঘরের বাইরে এসে
সবাই তোমাকে বরণ করবে হেসে।’