অনুকবিতা ১৬ / সাইফ আলি

এই খামখেয়ালির রাত পেরুলেই ভোর
চল চন্দ্র তারা ঝাওবাতি সব তোর
আমি রাতের আঁধার রাখবো পুরে বুকে
তুই আলতো করে পড়িস যদি ঢুকে।

12.01.19

Advertisements

অনুকবিতা ১৫ / সাইফ আলি

খাটের উপরে তুমি নাক ডাকো পরাণের পাখি
খাটের নিচেয় থাকে ফণা তুলে বিষাক্ত সাপ
স্বপ্নের ঘোরে তুমি সরিসার খেত ভাঙো পায়ে
লেপের ভেতর থেকে ঝুলে পড়ে তোমার জীবন।

11.01.19

ঘুনপোকা / সাইফ আলি

ঘুনপোকা ঘুনপোকা ঘুনপোকা
হাশফাশ নগরীর বোকাসোকা লোকেদের চেয়ারের হাতলের ঘুনপোকা
বের হয়ে আয় তোরা ঐসব চেয়ারের নে দখল
নীতিহীন জালিমেরা যে চেয়ার করে আছে বেদখল।

যে চেয়ার এনে দেয় জুলুমের অধিকার!
যে চেয়ার লোভীদের স্বার্থের হাতিয়ার
সে চেয়ার অধিকারে নিয়ে নে
কুড়ে কুড়ে খেয়ে ফেল চেয়ারের পায়াগুলো ভেঙে যেনো পড়ে যায় মাটিতে
তারপর হানা দিস আলমিরা সোফাসেট কালো টাকা গয়নার ঘাটিতে।

ঘুনপোকা ঘুনপোকা ঘুনপোকা
বোকাসোকা মানুষের চেয়ারের হাতলের ঘুনপোকা
বের হয়ে আয় তোরা নে দখল
যে চেয়ার হয়ে আছে বেদখল।

09.01.19

ইতিহাস শুনবো না আমি / সাইফ আলি

কতিপয় জানোয়ার চেতনার খেতা ভরে মতে
গলা ছেড়ে গান গায় বিকৃত ইতিহাস টেনে,
আমরা কানার দল, ভয় পায়, কাতরায় রাতে
আমার স্বজন আছে ভালো! এটুকুই শান্ত্বনা মেনে।

ইতিহাস শুনবো না আমি। ইতিহাস বলো না আমাকে
এ সময় ধর্ষিত পাখি, ডানা ভাঙা; কাতরাতে থাকে।
দলান্ধ বধিরেরা শোনো- জালিমেরা প্রেমিকা বোঝেনা।
স্বার্থের কাম যদি জাগে, তখন সে মানুষ থাকেনা।

02.01.19

নিখোঁজ / সাইফ আলি

অমক নিখোঁজ তমক নিখোঁজ
নিখোঁজ গোটা দেশটা
এত্ত সহজ পাল্টে ফেলা স্বৈরাচারী বেশটা?

শকুন কি আর ভাগাড় ছেড়ে
সভ্য হবে ভাই রে 
মড়ার খোঁজে ঘাড় গুঁজে সে
মুখ ফেরানো দায় রে।

এই শকুনের বসত ভিটে
খোঁজ করে দে পুড়াইয়া;
আর কতকাল চলবে এ দেশ
লিমন হয়ে খুড়াইয়া?

স্বৈরাচারের জবাব দিতে পারিস যদি দাঁড়াইতে
আর হবে না গুমের দেশে সোনার দামাল হারাইতে,
কিন্তু যদি ঘরের কোণে মুখ লুকিয়ে বাঁচতে চাস
বদলাবে না বদলাবে না স্বৈরাচারের এই বাতাস।

21.12.18

আমি এই রাতের শরীর / সাইফ আলি

গলিত চাঁদের পাশে ধ্যানমগ্ন বৃক্ষের ছায়া,
শব্দের তার ধরে গাঁটছাড়া রাতের পেয়াদা;
আমাকে পোড়ায় তারা অগণিত সারাক্ষণ-
আমি এই রাতের শরীর 
আমি এই মুগ্ধতা বুকে লেপে নিশ্চুপ জেগে থাকা নিঃসঙ্গ রাতের শরীর।

আমাকে ছুঁয়োনা প্রিয়তমা
নির্ঘাত প্রেমে পড়ে যাবে,
নীলাভ শূন্যতায় নিজেকে খোয়াবে।

04.12.18

অনুকবিতা ১৪ / সাইফ আলি

উষ্ণজলের আমন্ত্রণে খেই হারা এক কাঙাল কবি
মরলো ডুবে এখন সে আর অন্য কোথাও প্রেম খোঁজে না,
চোখের এবং ঠোঁটের ভাষা সাগর হয়ে উঠলে এমন
কবির কি আর সাধ্য থাকে এড়িয়ে যাওয়ার!?
কবি কেবল ডুবতে থাকে, সাঁতার কেটেও লাভ হলো না।

04.12.18