ওগো নদী / সাইফ আলি

ওগো নদী
গোলাপের মতো রাঙা ওষ্ঠে তোমার কালো তিল
ঐ চিল
ভোরে সন্ধ্যায় ঝিলমিল ঝিলমিল
আহা তোমার নিখিল!

সীমাহীন গতিময়
তোমার হৃদয়,
তোমার ছোঁয়ায়
এ মাটির বুকে প্রাণ সঞ্চার হয়।
তোমার ঐ বুক ভরা প্রাণের মিছিল!

বাঁকা চাঁদের মতো
জীবিকার নাওগুলো ভাসছে,
দুকূলে তোমার সোনার ফসল হাতে
সবুজের শ্রমিকেরা হাসছে।
নদী তোমার
রমণীর সাথে পাই মিল।

১০/০৬/২২

এখন যান্ত্রিক যুগলেরা / সাইফ আলি

এখন যান্ত্রিক যুগলেরা
কফির আড্ডায় এসে
হেসে হেসে ফেটে পড়ে বিনাকারণেই
জানি ভালোবাসা কেঁদে মরে অন্তরালেই।।

পকেটের ভার মেপে
বলে দেয় সংক্ষেপে,
চোখে চোখ রেখে করে প্রতারণা!
আজ সহজ মানুষের মূল্য যে নেই।।

ফিতা কেটে সুরু হয়
উৎসব অভিনয়
ক্যামেরার স্ক্রিনে যেনো হাসি ধরে না!
হায় দিনশেষে খুঁজে ফেরে নিজেকে নিজেই।।

০১/১০/২০

চাঁদ জ্বলেছিলো বলে আকাশে / সাইফ আলি

চাঁদ জ্বলেছিলো বলে আকাশে
মেঘেদের দল রুপোলী আলোয় মেতেছিলো
তুমি হেসেছিলে তাই বকুলের দল
শুভ্র চাদর পেতেছিলো।।

কত নদী বয়ে যায় ভাসিয়ে দু’কূল
তোমার পরশে ফোটে প্রেমের মুকুল
তাই তোমার নামে কেউ সুর তুলেছিলো..
চাঁদ জ্বলেছিলো বলে আকাশে
মেঘেদের দল রুপোলী আলোয় ভুলেছিলো।।

কত তারা নীভে যায় কতক আবার
জ্বলে ওঠে বার বার স্মরণে তোমার
হায় তোমার নামে কেউ সুর সেধেছিলো
চাঁদ জ্বলেছিলো বলে আকাশে
কবিতার সাথে কবি ঘর বেঁধেছিলো।।

৩০/০৯/২০

কোনোকিছু নিয়ে ভাবতে চাইনা আর / সাইফ আলি

কোনোকিছু নিয়ে ভাবতে চাইনা আর
ভাঙতে চাইনা আমাদের সংসার
চলছে যেমন তেমনি চলুক
সত্য লুকিয়ে মিথ্যে বলুক ইচ্ছে হয়েছে যার
ভাঙতে চাইনা নিরিবিলি এই শামুকের সংসার।।

পাশের বাসার ঐযে মেয়েটা সে আমার ছোটো বোন
শুনলাম নাকি বখাটেরা তাকে করেছে ধর্ষণ
কি বলবো আমি আমার কি দায় আমি কি করতে পারি
মনটা খারাপ তাইতো সকালে বউকে দিয়েছি ঝাড়ি।।
জীবন চলে না তার যতসব উদ্ভট আবদার…

দুর্ণীতিবাজ চুনোপুটিগুলো কঠিন তো নয় ধরা
কিন্তু এ জালে ফাসবে না জানি রাজত্য যার গড়া;
কি বলবো আমি আমার কি দায় আমি কি করতে পারি
মনটা খারাপ ভাবছি আজকে ফিরবো না রাতে বাড়ি।।
চলছে যেভাবে চলুক না সব জীবনটা যার যার।

মাথাতে পচন তাতে কি মাছের লেঞ্জাটা তরতাজা
বিশ্বাস নেই? কি করা তাহলে ভরশা পটল ভাজা!
নিরুপায় আমি নিরিহ আমার শাদাকালো দিন রাত
নামাজ রোজায় কোনোভাবে যদি মিলে যায় জান্নাত।।
সেই ধান্দায় কোনোভাবে ভাই জীবন করছি পার।

২৭/০৯/২০

রোজ সকালে যেই পাখিটা / সাইফ আলি

রোজ সকালে যেই পাখিটা ডাকতো বসে জানালায়
মাস ফুরালো আসলো না যে হারিয়ে গেলো কোথায়
পাখিটা আসতো গাইতো খেলতো একা কেউ ছিলো না সঙ্গী তার
কখনো হয়নি মনে এর আগে এতো আপন সে আমার।।

পালকে রঙ ছিলো কি নেয় মনে তা হয়নি দেখা ঠিক করে
বুঝিনি ছেড়েছে কখন যে সে আমাকে প্রেমিক করে
এখন কোন বনে যে মিলবে দেখা কোনখানে যে পাবো তার।।

জানালা রাখছি খুলে পর্দা তুলে কোনো বাধা নেই তো আর
এসেছে বৃষ্টি রোদ ঝড় তুফান আসেনি পাখি আমার
সময় স্রোত ভাসিয়ে নিস এ স্মৃতি, চাই না কোনো উপহার।।

২৬/০৯/২০

অডিও শুনতে এখানে ক্লিক করুন

একে একে ভুলগুলো জমে গেছে সব / সাইফ আলি

একে একে ভুলগুলো জমে গেছে সব
এ বেলায় এসে তা মুছবে কে
পৃষ্ঠাতো প্রায় শেষ জীবন খাতার
কি ব্যথায় কাঁদছি তা পুছবে কে?

রঙ রঙ রঙ ছিলো দু’চোখে যখন
শাদা কাফনের কথা ভুলেছি
পুরো দুনিয়াটা যেনো ডেকেছে তখন
বিবেকের সব গিট খুলেছি।।
ভাবিনি এ ভুলগুলো মুছবে কে।

চলে যায় যে সময় সে তো আর ফিরবে না
ফিরবে না সে সময় কখনো
তবু ওগো রহমান, ও আমার রব
তুমি ছাড়া আর আমাকে বুঝবে কে?

সব রঙ ফিকে হয়ে গিয়েছে এখন
দুনিয়াটা লাগছে না ভালো আর
এ প্রদীপে কখনো জ্বলবে কি আলো
কাটবে কিনা জীবনের এ আঁধার।।
ভাবছি এ ভুলগুলো মুছবে কে।

২৪/০৯/২০

ছোট্ট একটা গল্প লেখা হয়নি এখনো / সাইফ আলি

ছোট্ট একটা গল্প লেখা হয়নি এখনো
সেই গল্পে তুমি আমি আর কে কে তা শোনো।।

আছে একটা কাঠবিড়াল
তার চারটা ক্ষুদে দাঁত
আছে একটা টুনটুনি
টুন টুন টুন সারা রাত।।
জিড়ায় না কখনো।

তুমি হাসছো আমি সত্যিই
সেই গল্প লেখতে চাই,
ভরা জোছনায় পাশাপাশি
বসে স্বপ্ন দেখতে চাই।।
তুমি চাওনি কখনো?

০৮.০৬.২২

এই রাস্তায় নেই কেউ নেই / সাইফ আলি

এই রাস্তায় নেই কেউ নেই
আমি একলা একাই হাঁটছি
আর ঘুম ঘুম গোটা শহরের
চোখে স্বপ্নের সুখ বাটছি।।

ও শহর ট্রেনের যাত্রী
আমি বিষণ্ণ এক রাত্রি
তুমি আমার বুকেই কান্না করো হাসো
আমি জানি তুমি আমায় ভালোবাসো।।
তুমি ঘুমাও আমি তোমায় ঘিরে রাখছি।

আমি পারবোনা দিতে জোনাকির প্রেম এনে
কোনো ল্যাম্পপোস্ট আজো নেয়নি তাদের মেনে
তবে উঠলে ছাদে আকাশ ছুঁতে পারো
আমি বন্ধুর মতো তোমার পাশে থাকছি।।

ও শহর ট্রেনের যাত্রী
আমি বিষণ্ণ এক রাত্রি
তুমি মুখোশ খুলেই আমার কাছে আসো
আমি জানি তুমি আমায় ভালোবাসো।।
তুমি ঘুমাও আমি তোমায় ঘিরে রাখছি।

০৮.০৬.২২

পুড়ে যাওয়া মেঘ / সাইফ আলি

পুড়ে যাওয়া মেঘ
উড়ে যাওয়া নাও
আমাকে তোমার
বন্ধু বানাও।।

কার দু’চোখের কাজল মেখে
পুড়ালে অমন নিজেকে
কার ইশারায় জমাট বাঁধো
বৃষ্টি হয়ে যাও!

যেই নদীটা বইছে একা
তার কাছে এই প্রেম নিয়ে যাও
বৃষ্টি ঝরাও… বৃষ্টি ঝরাও…
তার বুকেতে বৃষ্টি ঝরাও।।

যেই শহরের গরম পিঠে
প্রজাপতির পা পুড়ে যায়
তার কাছে এই প্রেম নিয়ে যাও
বৃষ্টি ঝরাও… বৃষ্টি ঝরাও…
তার দু’চোখে বৃষ্টি ঝরাও।।

যার বুকেতে ব্যথার পাড়ার
হও উপশম তার সাহারার
জমাট বেঁধে আসমানে তার
বৃষ্টি ঝরাও… বৃষ্টি ঝরাও…
তার কাছে এই প্রেম নিয়ে যাও।।

০৬.০৬.২২

আজ স্বজনহারার কান্না শোনাও পাখি / সাইফ আলি

আজ স্বজনহারার কান্না শোনাও পাখি
আজ স্বজনহারার জন্য তুমি ওড়ো
আকাশটা আজ কালো ধোঁয়ায় ছাওয়া
তুমি কান্না শেষে আবার কাঁদো, পোড়ো।।

আজ পথ চেয়ে কেউ থাকবে ভীষণ একা
কেউ মর্গে যাবে, স্বর্গে যাবে উড়ে
তুমি ক্যামনে খবর পৌঁছে দিবা পাখি
প্রিয়তমার প্রাণ যে যাবে পুড়ে।।
তুমি ক্যামন কোরে বলবে কবর খোড়ো?

পাখি গুটাও ডানা তোমার কিসের ঠেকা
যার হৃদয় আছে পুড়তে পারে একা;
তুমি কাঁদছো তবু তোমার চোখে পানি
প্লিজ বন্ধ করো শোকের কাব্য লেখা।।
কার লাশের পোড়া গন্ধ ভারে পোড়ো?

০৫.০৬.২২