যখন সন্ধ্যা নেমে আশে / সাইফ আলি

যখন সন্ধ্যা নেমে আশে
তুমি আমার চারিপাশে
দাও জোনাকবাতি জ্বেলে;
আমি সবটুকু প্রেম জায়নামাজে
দিতাম যদি ঢেলে!!

আমি সর্বনাশে ডুব দিয়েছি প্রভু
আমার অন্ধ চোখের পর্দা তুমি তোলো
আমার এ কাধ বোঝা বইতে না আর পারে
দেখো নুইয়ে কেমন পড়ছি পাপের ভারে
সবাই যে যার মতো যাচ্ছে আমায় ফেলে।

রঙিন প্রজাপতির দল গিয়েছে ফিরে
আমি কাঁদছি ঝরা ‍ফুলগুলোকে ঘিরে
প্রভু গ্রহণ করো কাওসারে নাও ধুয়ে;
আমি শিশুর মতো সব প্রয়োজন থুয়ে
কেবল তোমার ছায়ায় ঘুমোবো ঘুম পেলে।

১১.০৪.২১

এতো ভালো কেনো বাসো / সাইফ আলি

এতো ভালো কেনো বাসো
মানুষের কাতারে রাখো না?
আদমের ছেলে আমি
তুমি প্রিয়া আদমেরই মেয়ে,
আমাদেরও পাপ হয়
লোভে পড়ে গন্দম খেয়ে।

যে পাপ করেছি আমি
ক্ষমা চেয়ে মুছবো সে পাপ,
আমাতে ভরসা করো
শুরু হোক ফের সংলাপ।

০৪.০৪.২১

চাঁদ / সাইফ আলি

প্রতিদিন আমাদের কোলজুড়ে নামে এক চাঁদ
সে চাঁদের সারা মুখে জ্বলে থাকে ভয়াল বিস্বাদ
জোছনায় হাতড়াই ঘন এক আঁধারের বুক
আর ভাবি এক্ষণই ক্লান্তিরা ঘুমিয়ে পড়ুক!
আমরা হতাশ হই বার বার বহুবার, ফের
রঙিন স্বপ্ন আর সাধ নিয়ে বাঁচা আমাদের।

১০.০৩.২১

এই দৃষ্টির কাছে / সাইফ আলি

এই দৃষ্টির কাছে
বোবা দৃষ্টির কাছে
নত হয়ে আছে পৃথিবী,
তাই চোখে চোখ রেখে আমি
বলতে পারিনি হায়
ক্ষমা করে দিও আমাকে…

নিঃশ্বাসে নিঃশ্বাসে এতো নেয়ামত তার
কতটুকু অর্জন বলো আমাদের
আমার নিজের বলে কতটুকু আছে বলো
ভুলে গেছি এভাবে তাদের?
প্রভূ ক্ষমা করে দিও আমাকে।।

বিশাল এ আকাশের শূন্যতা মেপে মেপে
যে তারা ঘুমিয়ে পড়ে বুকেতে পাথর চেপে
ভাই বলে পরিচয় দিতে যে পারিনি তাকে,
ক্ষমা করে দিও আমাকে…
প্রভূ ক্ষমা করে দিও আমাকে…

মুনাফিক খুঁজে খুঁজে দাঁড়িয়েছি চোখ বুজে
আয়নাতে যখনি দাঁড়াই,
তবু যেনো কেউ ডেকে বলে যায় থেকে থেকে
তার থেকে কিভাবে পালাই?
আমি মুনাফিক পাই নিজেকে।।

১৫.০২.২১

এই রাত পোহালে ভোর / সাইফ আলি

এই রাত পোহালে ভোর
সব সঙ্গী গেছে তোর কোন পথে
তুই একলা এখানে
কার জাগলি আজানে, মনপথে?

আহত পূর্ণিমা, মেঘে ঢেকে যায়
তারারা জ্বলছে না, এখন কি উপায়?
অথচ তোর আঙিনায় ঝরছে সোনা রোদ!
তার একটু যদি তুই রাখিস এই ক্ষতে।

ঝিনুকে পোষা মন
সমুদ্র চেনে না
হোক মুক্তা সে যতই
জীবন তো মাখছে না।

তুই একলা এখানে, চোখদু’টো খোলা
তোর সঙ্গী কে কোথায়, তাদের তো দেখছি না!
অথচ পথতো একটাই একেবেঁকে গেছে
তুই ডাক দে প্রাণপণে তোর মতে।

১১.০২.২১

মধ্যরাতের হাওয়ায় / সাইফ আলি

‘মধ্যরাতের হাওয়ায় কেমন গন্ধ থাকে’
বললে তুমি অবাক চোখে তাকাও
কারণ তোমার জানলা তখন বন্ধ থাকে
মধ্য রাতের হাওয়ায় কিছু ছন্দ থাকে।

তা না হলে এই যে আমি রাত্রি জেগে
কাব্য লেখার নেশায় এমন বুদ হয়ে যাই,
দিনের বেলা যে রাস্তাটা বন্ধ থাকে
সে রাস্তাতেই জোছনা নামে দারুণ মায়ায়!

মধ্যরাতের হাওয়ায় কিছু দ্বন্দ্ব থাকে
খুঁজলে তাতে ছন্দ থাকে, গন্ধ থাকে।
২৭.০১.২১

প্রয়োজন মিটে গেলে বলে দিও / সাইফ আলি

প্রিয়
প্রয়োজন মিটে গেলে বলে দিও
ঝরা পাতা হবো, বহুকাল পুরোনো এ শখ
আর এই কথা জেনে রাখা তোমাদের হক।

প্রয়োজন মিটে গেলে কানে কানে ফিসফিসে স্বরে
বলে দিও- ‘আসতে পারেন’ ছোটো করে- ‘এসো’।
বহুদিন যাইনি কোথাও,
বেড়ানোর ছলে
কৌশলে সরে যাবো, জানবে না কেউ;
স্বপ্নেও আসবো না কারো
আর যদি পারো
আকারে বা ইশারায়; সবচেয়ে ভালো হয় সেই
এর থেকে সাবলিল আর কোনো বিচ্ছেদ নেই।
প্রিয়
প্রয়োজন মিটে গেলে আত্মাও রাখে না এ দেহ
তাই বলে দিও
আমি জানি, তোমাদের ভালোবাসা, স্নেহ
কোনোদিন ফুরোবে না, কমবে না একচুল মাপে;
কেবল পচন ধরে সময়ের উত্তাপে, ভাপে।
২৭.০১.২১

এতো সামলে চলার পরও / সাইফ আলি

এতো এতো সামলে চলার পরও
কেনো যে ভুল হয়ে যায় প্রভু
সোজা পথ কখন যে যায় বেঁকে
বুঝিনা, তোমায় খুঁজি তবু…।।

জানি না জলের বিধান
সাগর তলের বিধান
জানিনা আমার বিধান কিবা;
তবু চাই আরশ ছায়ায় আমারে ঠাঁই দিবা।।
প্রভু
বুঝিনা তোমায়, খুঁজি তবু…

নীলিমার নীলের কি কাম
মানব মিলের কি কাম
কি কামে অকর্মারে নিবা;
শুধু চাই তোমার মায়ায় আমারে ঠাঁই দিবা।।
প্রভু
বুঝিনা তোমায়, খুঁজি তবু…
২০.০১,২১

আমি বুঝিনি কখন / সাইফ আলি

আমি বুঝিনি কখন
আমার এ মন
পাথরের মতো হয়ে
গেছে যে এমন।।

এইতো সেদিন
সামান্য ব্যাথাতেই কেঁদে কেঁদে হায়
কতো ডেকেছি তোমায়,
প্রভু ডেকেছি তোমায়।।
অথচ এখন
পাথরের মতো হয়ে গেছে দু’নয়ন।

পাথর সরিয়ে দাও জাগুক নয়ন
ঝরণার জলে ডুবে ডুবে এই মন
এমন নরম হোক, ওগো দয়াময়
তোমার প্রেমের যেনো চাষাবাদ হয়।

কি জানি কখন এই দুনিয়া আমার
কেড়ে নিলো ঘুম
আকাশ কুশুম
চিন্তায় কেটে গেলো রাত্রি নিঝুম।
কি জানি কখন,
ঘন এ আঁধার ঘিরে মজেছে জীবন!
১৫.০১.২১

আমি কিছু করতে চাই তাই আমার ভুল হবেই / সাইফ আলি

আমি কিছু করতে চাই তাই আমার ভুল হবেই
তোমরা যারা চুপচাপ থাকো, তাদের কিসের ভুল
শুধু আমার ভুলগুলো নিয়ে বাধাও হুলুস্থুল।।

মানবিক কোনো ভুলের ঊর্ধ্বে নই
ভুল থেকে শিক্ষা নিয়ে এগিয়ে যাবোই;
সত্য কথা বলতে আমি
সত্য পথে চলতে আমি
হতে রাজি তোমাদেরও চক্ষুশূল।।

শয়তানের প্ররোচনায়
কিংবা কারো ধোকায়
অথবা নিজেই নিজের নির্বুদ্ধিতায়
ভুল তো আমার হবেই, আমি স্রষ্টা নই;
ক্ষমার আশা নিয়ে তাই এগিয়ে যাবোই।
স্রষ্টা আমাকে তুমি করো গো কবুল।।
১২/০১/২১