মধ্যরাতের হাওয়ায় / সাইফ আলি

‘মধ্যরাতের হাওয়ায় কেমন গন্ধ থাকে’
বললে তুমি অবাক চোখে তাকাও
কারণ তোমার জানলা তখন বন্ধ থাকে
মধ্য রাতের হাওয়ায় কিছু ছন্দ থাকে।

তা না হলে এই যে আমি রাত্রি জেগে
কাব্য লেখার নেশায় এমন বুদ হয়ে যাই,
দিনের বেলা যে রাস্তাটা বন্ধ থাকে
সে রাস্তাতেই জোছনা নামে দারুণ মায়ায়!

মধ্যরাতের হাওয়ায় কিছু দ্বন্দ্ব থাকে
খুঁজলে তাতে ছন্দ থাকে, গন্ধ থাকে।
২৭.০১.২১

প্রয়োজন মিটে গেলে বলে দিও / সাইফ আলি

প্রিয়
প্রয়োজন মিটে গেলে বলে দিও
ঝরা পাতা হবো, বহুকাল পুরোনো এ শখ
আর এই কথা জেনে রাখা তোমাদের হক।

প্রয়োজন মিটে গেলে কানে কানে ফিসফিসে স্বরে
বলে দিও- ‘আসতে পারেন’ ছোটো করে- ‘এসো’।
বহুদিন যাইনি কোথাও,
বেড়ানোর ছলে
কৌশলে সরে যাবো, জানবে না কেউ;
স্বপ্নেও আসবো না কারো
আর যদি পারো
আকারে বা ইশারায়; সবচেয়ে ভালো হয় সেই
এর থেকে সাবলিল আর কোনো বিচ্ছেদ নেই।
প্রিয়
প্রয়োজন মিটে গেলে আত্মাও রাখে না এ দেহ
তাই বলে দিও
আমি জানি, তোমাদের ভালোবাসা, স্নেহ
কোনোদিন ফুরোবে না, কমবে না একচুল মাপে;
কেবল পচন ধরে সময়ের উত্তাপে, ভাপে।
২৭.০১.২১

এতো সামলে চলার পরও / সাইফ আলি

এতো এতো সামলে চলার পরও
কেনো যে ভুল হয়ে যায় প্রভু
সোজা পথ কখন যে যায় বেঁকে
বুঝিনা, তোমায় খুঁজি তবু…।।

জানি না জলের বিধান
সাগর তলের বিধান
জানিনা আমার বিধান কিবা;
তবু চাই আরশ ছায়ায় আমারে ঠাঁই দিবা।।
প্রভু
বুঝিনা তোমায়, খুঁজি তবু…

নীলিমার নীলের কি কাম
মানব মিলের কি কাম
কি কামে অকর্মারে নিবা;
শুধু চাই তোমার মায়ায় আমারে ঠাঁই দিবা।।
প্রভু
বুঝিনা তোমায়, খুঁজি তবু…
২০.০১,২১

আমি বুঝিনি কখন / সাইফ আলি

আমি বুঝিনি কখন
আমার এ মন
পাথরের মতো হয়ে
গেছে যে এমন।।

এইতো সেদিন
সামান্য ব্যাথাতেই কেঁদে কেঁদে হায়
কতো ডেকেছি তোমায়,
প্রভু ডেকেছি তোমায়।।
অথচ এখন
পাথরের মতো হয়ে গেছে দু’নয়ন।

পাথর সরিয়ে দাও জাগুক নয়ন
ঝরণার জলে ডুবে ডুবে এই মন
এমন নরম হোক, ওগো দয়াময়
তোমার প্রেমের যেনো চাষাবাদ হয়।

কি জানি কখন এই দুনিয়া আমার
কেড়ে নিলো ঘুম
আকাশ কুশুম
চিন্তায় কেটে গেলো রাত্রি নিঝুম।
কি জানি কখন,
ঘন এ আঁধার ঘিরে মজেছে জীবন!
১৫.০১.২১

আমি কিছু করতে চাই তাই আমার ভুল হবেই / সাইফ আলি

আমি কিছু করতে চাই তাই আমার ভুল হবেই
তোমরা যারা চুপচাপ থাকো, তাদের কিসের ভুল
শুধু আমার ভুলগুলো নিয়ে বাধাও হুলুস্থুল।।

মানবিক কোনো ভুলের ঊর্ধ্বে নই
ভুল থেকে শিক্ষা নিয়ে এগিয়ে যাবোই;
সত্য কথা বলতে আমি
সত্য পথে চলতে আমি
হতে রাজি তোমাদেরও চক্ষুশূল।।

শয়তানের প্ররোচনায়
কিংবা কারো ধোকায়
অথবা নিজেই নিজের নির্বুদ্ধিতায়
ভুল তো আমার হবেই, আমি স্রষ্টা নই;
ক্ষমার আশা নিয়ে তাই এগিয়ে যাবোই।
স্রষ্টা আমাকে তুমি করো গো কবুল।।
১২/০১/২১

আমার এক জানালায় আকাশ ছিলো / সাইফ আলি

আমার এক জানালায় আকাশ ছিলো
আর জানালায় বন
মন রে ও মন
তুই পাখির কথা শোন।।

যেই জানালায় আকাশ ছিলো
সেই জানালায় মেঘ
মেঘের ঘরে বৃষ্টি ছিলো;
তার মনে উদ্বেগ-
‘আমি উড়বো কতক্ষণ।।’

আর জানালায় বনের খাতা
ভরে ছিলো সবুজ পাতা
শাখায় শাখায় ফুল জানালো
আমায় নিমন্ত্রণ।
আমি পাখির মতো উড়বো সেথায়
ইচ্ছে যতক্ষণ…

আমি দুয়ার খুলে বনের পথে
যেই বাড়ালাম পা,
বৃষ্টি ছুয়ে দিলো সবার
প্রথম আমার গা।।
বৃষ্টি ভেজা মন তুই পাখির কথা শোন
আকাশ পেয়ে যাসনা ভুলে বনের নিমন্ত্রণ।
১২.০১.২১

এ বাগান থেকে আর কতো ফুল ঝরে গেলে / সাইফ আলি

এ বাগান থেকে আর কতো ফুল ঝরে গেলে
আমাদের ভাঙবে গো ঘুম
কেবলই স্বপ্ন দেখি, বিরহ কাব্য লেখি
হতাশার পিঠে দিই চুম।।

আমাদের বুকে নেই ওমরের চেতনা
খালিদের মতো নেই তলোয়ার,
কিভাবে ভাঙবো তবে জালিমের কালো হাত
কিভাবে মুক্তি পাবো বলো আর।।
এ আশা কি আকাশ কুশুম…?

যন্ত্রণা এর থেকে কম কিসে জানি না
বলতে পারি না প্রভু তোমার আদেশ ছাড়া
আর কারো কোনো কথা মানি না।

হেদায়াত দাও প্রভু আরো দাও আরো দাও
দৃষ্টির তীক্ষ্ণতা বাড়িয়ে,
কুয়াশার এ আধার ভেদ করে করে যেনো
যেতে পারি সব বাধা মাড়িয়ে।।
ভেঙে দাও এই কালো ঘুম…
১১.০১.২১

এই নত মুখে বসে থাকা ভোর / সাইফ আলি

এই নত মুখে বসে থাকা ভোর
দিতে পারে না পারে না উত্তর
কবে ফুটবে আলো
কাটবে এ আধারের ঘোর।।

ভ্রান্তির এ আধার ঘুচবে কবে
অশান্ত এ হৃদয় শান্ত হবে,
কবে জ্বলবে আলো বুকে তরুণ অরুণ
আমাদের মাথার উপর।।

খোদার কালাম নিয়ে বসে আছো কে
শত ফুল ফুটবে তোমার ডাকে
তুমি আওয়াজ তোলো এই দুয়ার খোলো;
তুমি বাসা বাধো বুকের ভিতর।

শান্তির এ পথেই আসবে বিজয়
নমনীয় শিরদাঁড়া আমাদের নয়
তুমি বলবে কথা সদা উঁচু করে শির
প্রশ্নের দেবে উত্তর।।
১১.০১.২১

চেনা এক বৃক্ষের ডালে / সাইফ আলি

চেনা এক বৃক্ষের ডালে
সেদিন পড়ন্ত বিকালে
পাখি তুই বসে ছিলি একা
এখানেই শেষ হতো লেখা
যদি শিস না দিতিস…

এ গল্পের শুরু থাকতো না
কেউ অবেলায় পিছু ডাকতো না
হারানোর ব্যথা বুঝতো না মন
যদি প্রেম না দিতিস।।

পাখনার ঝেড়ে ফেলে ঘুম
তুই এনে দিলি রাত নিজঝুম
কবে এই রাত হলো দীর্ঘ এমন!?
যদি নাম না নিতিস।।
পাখি শিস না দিতিস…
০৩.০১.২১

ভালোবেসে কেউ বনে যেতে চায় / সাইফ আলি

ভালোবেসে কেউ বনে যেতে চায়
কেউ ভালোবেসে শহর বানায়
আমিই কেবল ভালোবেসে বেসে
জড়ো করি সব পাখির ডানায়।।

তুমি কি দেখনা ভালোবাসাহীন
কিভাবে যাচ্ছে আমাদের দিন;
শুধু ছুটে চলে অর্থের পিছে
পরষ্পরের বাড়ছে যে ঋণ।।
ঋণখেলাপির তকমা লাগিয়ে
চলতে কি আর আমাকে মানায়
তাই যতো সব ভালোবেসে বেসে
জড়ে করি এই পাখির ডানায়…

ইট কাঠ বালি আর এক ফালি
শহরের ছাদে ঝুলে থাকা চাঁদ
ভালোবেসে কেউ তোমাকে ছাড়াই
প্রেমের কাব্য করছে আবাদ।।
অথচ আমার প্রেমের কবিতা
তোমার জন্য আটকিয়ে যায়
পাখিদের এই শহরে বন্ধু
তোমাকে ছাড়া কি আমাকে মানায়?
৩১.১২.২০